x

এইমাত্র

  •  শিগগিরই দেশে পৌঁছাবে রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের পারমাণবিক রিঅ্যাক্টর
  •  সশস্ত্র বিদ্রোহীদের সঙ্গে সংঘর্ষে মারা গেলেন চাদের প্রেসিডেন্ট
  •  দুই জান্নাতকেই কন্ট্রাকচ্যুয়াল বিয়ে করেছিলেন মামুনুল
  •  লকডাউনে থাকছে যেসব বিধিনিষেধ
  •  জামায়াত ও হেফাজত একই সূত্রে গাঁথা: আ.লীগ

সিরিয়ায় বিমান হামলা চালিয়ে ইরানকে বাইডেনের শতর্কবার্তা

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৭:৪৫

সাহস ডেস্ক

প্রথমবারের মতো বিদেশের মাটি সিরিয়ায় গত বৃহস্পতিবার ইরানসমর্থিত দুই মিলিশিয়া গোষ্ঠীর স্থাপনা লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানোর পর যুক্তরাষ্ট্রে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ইরানের উচিত একে একটি সতর্কবার্তা হিসেবে নেওয়া।

এই হামলা থেকে কোনো বার্তা পাঠাতে চেয়েছেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে জো বাইডেন ইরানকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘দায়মুক্ত হয়ে আপনি কাজ করতে পারেন না। সতর্ক হয়ে যান।’

টেক্সাসে সম্প্রতি ব্যাপক তুষারঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া লোকজনকে সহায়তাদানের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এক পরিদর্শনে গিয়ে হাউসটনে বাইডেন এ মন্তব্য করেন। খবর-বার্তা সংস্থা এএফপি

গত দুই সপ্তাহে সিরিয়ায় মার্কিন সেনাদের ওপর কিছু রকেট হামলার প্রেক্ষাপটে যুক্তরাষ্ট্র এই অভিযান চালিয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। সিরিয়া যুদ্ধের ওপর নজর রাখা যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংগঠন সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস হামলায় অন্তত ২২ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে।

মার্কিন বাহিনীর হামলা প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, সিরিয়ায় মার্কিন ও যৌথ বাহিনীর ওপর সম্প্রতি যে রকেট হামলা হয়েছে, তার জবাব দিতেই প্রেসিডেন্ট বাইডেনের নির্দেশনায় হামলাটি চালানো হয়েছে। শুধু তাই নয়, বরং মার্কিন সেনাদের ওপর হুমকির বিষয়কেও মোকাবিলা করতে বলেছেন তিনি।

তিনি বলেন, সিরিয়ায় মোতায়েন যৌথ বাহিনীর অংশীদার ও মার্কিন মিত্রদেশগুলোর সঙ্গে পরামর্শ করেই প্রেসিডেন্ট বাইডেন হামলা চালানোর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ হামলায় সিরিয়া সীমান্তে ইরানসমর্থিত কাইতিব হিজবুল্লাহ, কাইতিব সায়েদ আল শুহাদাসহ কয়েকটি মিলিশিয়া গোষ্ঠীর বিভিন্ন স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

কিরবি আরো বলেন, হামলায় ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে প্রাথমিক বিস্তারিত তথ্য পেয়েও কিছুই প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানায় মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগন। তবে কিরবি দাবি করেন, বিমান হামলায় মিলিশিয়াদের ব্যবহৃত নয়টি স্থাপনা পুরোপুরি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আংশিক বিধ্বস্ত হয়েছে আরও দুটি।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ‘বাইডেন প্রশাসন বিশেষত ইরানকে এটি খুবই, খুবই পরিষ্কার করে দেখিয়ে দিতে চায় যে আমাদের জনগণ, আমাদের অংশীদার ও আমাদের স্বার্থের বিরুদ্ধে তাকে দায়মুক্তির ভিত্তিতে কোনো কাজ করতে দেওয়া হবে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমার ধারণা, তারা সেই বার্তা পরিষ্কারভাবে পেয়ে গেছে।’

বাইডেনের এ হামলাকে ‘কাপুরুষোচিত মার্কিন আগ্রাসন’ বলে নিন্দা জানিয়েছে সিরিয়া। এই হামলাকে বাইডেনের নতুন প্রশাসনের কাছ থেকে পাওয়া এক খারাপ লক্ষণ বলে আখ্যায়িত করেছে দামেস্ক। এ ছাড়া ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মার্কিন পদক্ষেপের কঠোর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে এটিকে ‘অবৈধ হামলা’ বলে আখ্যায়িত করেছে।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের এ পদক্ষেপ এই অঞ্চলকে আরও অস্থিতিশীল করে তুলবে বলে জানিয়েছে তেহরান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত