এএফসি কাপ ফুটবল

মোহনবাগান হারলেই পরবর্তী রাউন্ডে কিংস

প্রকাশ : ২৪ মে ২০২২, ২০:২৮

সাহস ডেস্ক

জিতলে টিকে থাকবে সম্ভাবনা, হারলেই বিদায়। এমন সমীকরণ নিয়ে ভারতের আই লিগের চ্যাম্পিয়ন গোকুলাম কেরালা এফসির বিপক্ষে নেমেছিল বসুন্ধরা। আর সে ম্যাচে গোকুলামকে হারিয়ে সে সম্ভাবনা টিকিয়ে রেখেছে বসুন্ধরা কিংস। মঙ্গলবার (২৪ মে) কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে গ্রুপের শেষ ম্যাচে ভারতের ক্লাবটিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশের কিংস। বসুন্ধরার এই জয়ে ভারতের গোকুলাম কেরালা ও মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টসের বিদায় নিশ্চিত হয়েছে। গ্রুপ সেরা হওয়ার দৌড়টা এখন বাংলাদেশের কিংস ও ভারতের মোহনবাগানের মধ্যে। এই জয়ে ৩ ম্যাচে বসুন্ধরার ৬ পয়েন্ট।

পরের ম্যাচে ভারতের মোহনবাগানকে মালদ্বীপের মাজিয়া যদি হারাতে পারে তাহলে মাজিয়ার পয়েন্ট হবে কিংসের সমান ৬। সেক্ষেত্রে মাজিয়াকে হারানোয়ে হেড টু হেডে পরবর্তী রাউন্ডে খেলবে বাংলাদেশের কিংস। আবার মাজিয়াকে যদি মোহনবাগান হারায় তাহলে কিংসের সমান ৬ পয়েন্ট হবে মোহনবাগানের। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশকে হারানোয়ে হেড টু হেডে পরবর্তী রাউন্ডে খেলবে ভারতের ক্লাবটি।

আগের ম্যাচে মোহনবাগানের বিপক্ষে ৪-০ গোলে হেরে বিধ্বস্ত হয়েছিল বসুন্ধরা কিংস। তবে মঙ্গলবার স্বাভাবিক ছন্দেই ছিল কিংসরা। একাদশে তিনটি পরিবর্তন আনেন কোচ অস্কার। প্রথম ম্যাচের জয়সূচক গোলদাতা নুহা মুরংকে একাদশে আনেন। এবং এদিনও সে গোল করেছেন। দ্বিতীয়ার্ধে ৯ মিনিটে নুহা রবসনের ক্রসে বক্সের মধ্যে লাফিয়ে হেড করে গোকুলাম কেরালার জালে বল জড়ান। এই গোলের যোগানদাতা অধিনায়ক রবসন প্রথম গোল নিজেই করেছেন। প্রথমার্ধের ৩৬ মিনিটে বক্সের মধ্যে দুর্দান্ত এক কোণাকুনি শটে দলকে প্রথম গোল এনে দেন অধিনায়ক।

এদিকে মোহনবাগানকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করা গোকুলাম কেরালা ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছে অনেকবার। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে এক সংঘবদ্ধ আক্রমণে একটি গোল পরিশোধ করে গোকুলাম। ডান প্রান্ত থেকে বক্সের মধ্যে ফেলা ক্রসে দ্রুত জোরালো গতির নেওয়া শটে কিংসের গোলরক্ষক জিকোকে পরাস্ত করেন কেরালার জর্ডেইন ফ্লেচার আনমার্কড। ম্যাচের বাকি সময় কেরালার দলটি সমতা আনার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। কিংস পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়লেও জয়ের আনন্দ করতে পারেনি কারণ রাতে মোহনবাগান জিতলে বাংলাদেশের ক্লাবটির বিদায় ঘণ্টা বাজবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?