স্বপ্নের মতো রোনালদোর পুনরাভিষেক

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫০

সাহস ডেস্ক
অবিশ্বাস্য পুনরাভিষেকে অবাক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো নিজেই | ছবি: ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড হয়ে গেটি ইমেজ কর্তৃক প্রকাশিত

যেন চিরচেনায় ফিরলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পুনরাভিষেক হলো তাঁর অবিশ্বাস্য। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সি গায়ে পুনরায় অভিষেকটা রাঙালেন স্বপ্নের মতো। নিউক্যাসলের বিপক্ষে জোড়া গোল করেই নতুন করে অভিষেক হলো সিআরসেভেনের।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে নিউক্যাসলকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। জোড়া গোল করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। একটি করে গোল করেছেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ ও জেসি লিংগার্ড। নিউক্যাসলের হয়ে একটি মাত্র গোল করেছেন জাবি ম্যানকুইলো।

এবার রোনালদোর পুরনো হিসেবে যাওয়া যাক। ২০০৩ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে অভিষেক হয়েছিল রোনালদোর। তখন তিনি ১৮ বছর বয়সী টগবগে তরুণ। ১৮ বছর আগে আগস্টের এক সন্ধ্যায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে অভিষেক হয়েছিল তাঁর। সেদিন বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন তিনি। তখন পোর্টসমাউথের বিপক্ষে ১-০ গোলে পিছিয়ে ছিল ম্যানইউ। বদলি হিসেবে নেমে দলকে জিতিয়ে ফিরেছিলেন তিনি। করেছিলেন ফ্রিকিকে অসাধারণ গোল। উচ্ছাসে মুখর ছিল ম্যানইউ জার্সি গায়ে হাজারো দর্শক। ঠিক তেমনি অভিষেক ঘটালেন দ্বিতীয়বার। করলেন জোড়া গোল।

এদিন রোনালদোর গোলেই এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় উলে গানার সুলশারের দল। গোলটি আসে বিরতিতে যাওয়ার অতিরিক্ত সময়ে। ম্যাচের ৪৫+২ মিনিটের সময় বক্সের বাইরে থেকে গ্রিনউডের শট গোলকিপার ঠিকমতো প্রতিহত করতে পারেননি। ফিরতি বলে সামনে থেকে আলতো টোকায় জালে বল জড়িয়ে দলকে এগিয়ে দেন রোনালদো। ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ম্যানইউ।

বল নিয়ে ছুটছেন রোনালদো | ছবি: রয়টার্স

বিরতি থেকে ফিরে এসে পাল্টাপাল্টি আক্রমণ দেখিয়েছে দুই দল। তবে পাল্টাপাল্টি এই আক্রমণে সুফল পায় নিউক্যাসল। ম্যাচের ৫৬ মিনিটে সেন্ট ম্যাক্সমিনের পাসে আড়াআড়ি শটে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান জাবি ম্যানকুইলো।

সমতায় ফিরলেও দমে যায়নি ম্যানইউ। দুর্বার ছিলেন রোনালদো। ছিলেন সুযোগের অপেক্ষায়, আর পেয়েও গেলে সুযোগ। সুযোগটি পেয়ে একটুও কার্পণ্য করেননি সিআরসেভেন। ম্যাচের ৬২ মিনিটে লুকা শয়ের পাস থেকে বক্সে ঢুকে বা পায়ের জোরালো শটে জাল কাঁপান এই ফরোয়ার্ড। নিজের জোড়া গোল নিয়ে দলকে আবারও এগিয়ে দেন তিনি।

এরপর ৮০ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্দেজের গোলে আবারো এগিয়ে যায় ম্যানইউ। বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে গোলটি করেন তিনি। আর যোগ করা সময়ে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন লিংগার্ড। অবশেষে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে নিউক্যাসলকে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

ইউনাইটেডের হয়ে দ্বিতীয়বারের মতো অভিষেকটা এতটা ভালো কাটবে সেটা তিনি আশাই করতে পারেননি। ম্যাচ শেষে বিবিসি স্পোর্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রোনালদো বলেছেন, দুই গোল করব বলে আশা করিনি আমি। একটা গোল পাব বলে আশা করেছিলাম। কিন্তু দুটি গোল পাওয়ার আশা আমি করিনি।

রাতে ওল্ড ট্রাফোর্ডের গ্যালারিতে দর্শক ছিল ৭৬ হাজার। তাদের সবার কণ্ঠেই ছিল ‘রোনালদো, রোনালদো’ স্লোগান। রীতিমতো মুগ্ধ রোনালদো সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন, সমর্থকেরা আজ (গতকাল) আমার সঙ্গে যা করেছে, তাদের প্রশংসা করতেই হবে। নিজেকে গর্বিত মনে হয়েছে।

রোনালদোর গোলের পর সমর্থকদের উল্লাস | ছবি: রয়টার্স

তিনি বলেন, এটা অবিশ্বাস্য। ম্যাচ শুরু করার সময় আমার খুব নার্ভাস লাগছিল। এটাই স্বাভাবিক। এছাড়া আমি আশা করতে পারিনি যে তারা পুরো ম্যাচে আমার নামে গান গাইবে। নার্ভাস না থাকলেও সেটা আমি বুঝতে দিতে পারতাম না। তারা যেভাবে আমাকে বরণ করে নিয়েছে সেটা এক কথায় অসাধারণ।

পর্তুগিজ সুপারস্টার আরো বলেন, আমি এখানে ম্যাচ জিততে আর দলকে সাহায্য করতে এসেছি। নিশ্চয়ই আমি গোল করে আনন্দিত। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে দল। আর দল ভালো খেলেছে।

এই জয়ে ৪ ম্যাচে ৩ জয় ও ১ ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সমান ম্যাচে সমান জয়ে সমান ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়তে আছে চেলসি। সমান ম্যাচে ৩ জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়তে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচে ৩ জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে আছে ব্রাইটন।

সাহস২৪.কম/এসকে/এসএ.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?