এমবাপ্পের জোড়া গোলে জয়ে ফিরেছে পিএসজি

প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:৪২

সাহস ডেস্ক

চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বার্সেলোনাকে তাদেরই মাঠে ৪-১ গোলে হারিয়েছিল পিএসজি। যেখানে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে। এরপরে এক ম্যাচ বাদেই আবারো জোড়া গোল করলেন এমবাপ্পে। তার জোড়া গোলে ফরাসি লিগ ওয়ানে স্বাগতিক দিজোঁকে হারিয়ে সহজ জয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয়তে উঠে এসেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। লিগে এর আগের ম্যাচের মোনাকোর বিপক্ষে ২-০ গোলে হেরেছিল প্যারিসের দলটি।

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে স্তাদে গ্যাস্টোন জেরার্ড স্টেডিয়ামে দিজোঁকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে মাওরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। এমবাপ্পে জোড়া গোল করলেও বাকি গোল দুটি করেছেন মইস কিন ও দানিলো পেরেইরা।

এদিন শুরুতেই এগিয়ে যায় পিএসজি। ম্যাচের ৬ষ্ঠ মিনিটে সেন্টারব্যাক আবদু দিয়ালোর পাসে গোলটি করেন মইস কিন। এদিন সেন্টারব্যাক দিয়ালো লেফটব্যাক হিসেবে খেলিয়েছেন পচেত্তিনো। আদর্শ লেফটব্যাকের মতো ওপরে উঠে গিয়ে স্ট্রাইকার কিনকে গোলে সহায়তা করেন, তার কাছ থেকে বল পেয়ে গোল করতে মোটেও সমস্যা হয়নি ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড কিনের।

পরে ম্যাচের ৩১ মিনিটে জার্মান রাইটব্যাক থিলো কেহরারের শট দিজোঁর ডি-বক্সে তাদের আলবেনিয়ান মিডফিল্ডার বেরসান্ত সেলিনার হাতে লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজায় রেফারি। সেখান থেকে গোল করে পিএসজিকে আরও এগিয়ে দেন এমবাপ্পে। পরে এই ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় পিএসজি।

বিরতি থেকে ফিরে এসে আবারো গোল করলেন এমবাপ্পে। ম্যাচের ৫১ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রাফিনহার পাস থেকে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত প্লেসমেন্টে গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়ে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে। পরে ম্যাচের ৮২ মিনিটে জার্মান মিডফিল্ডার ইউলিয়ান ড্রাক্সলারের কর্নারে মাথা ছুঁইয়ে দলের চতুর্থ গোল করেন পর্তুগিজ মিডফিল্ডার দানিলো পেরেইরা। এই ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্যারিসের দলটি।

এই জয়ে ২৭ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়তে উঠে এসেছে পিএসজি। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে লিলে। লিলের সমান ম্যাচ খেলে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়তে আছে লিঁও। ২৭ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্তস্থানে আছে মোনাকো।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?