আক্রমণাত্মক হওয়ার নির্দেশ শচীন টেন্ডুলকারের

প্রকাশ : ২২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬:০৭

জুবাইর হোসাইন সজল

চলমান ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার কাছে লজ্জাজনকভাবে হেরেছে সফরকারী ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৬ রানে অলআউট হয়ে ৮ উইকেটে ম্যাচ হারে টিম ইন্ডিয়া। ঐ টেস্টে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের অনেক বেশি রক্ষণাত্মক থাকতে দেখা গেছে। তাই সিরিজের বাকী ম্যাচগুলোতে, অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের উপর পাল্টা আক্রমণ করার নির্দেশ দিলেন ভারতের সাবেক মাস্টার ব্লাস্টার ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার।

৪ দিন আগে তার ইউটিউব চ্যানেলে শচীন টেন্ডুলকার বলেন, ‘প্রথম টেস্টে অনেক বেশি রক্ষণাত্মক খেলেছে ভারতের ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় সাফল্য পেতে হলে আক্রমনাত্মক খেলতে হবে। তবেই সাফল্যের দেখা মিলবে।’

আক্রমনাত্মক খেলার কথা জানিয়ে অতীতে অস্ট্রেলিয়ার সফরের অভিজ্ঞতার কথা তুলে আনেন টেন্ডুলকার। তিনি বলেন, ‘১৯৮৭-৮৮ সালে আমি বল বয় ছিলাম। সেখান থেকে অস্ট্রেলিয়া সফর করার সুযোগ পাই। তখন অস্ট্রেলিয়া দলে দুর্দান্ত সব বোলার। ক্রেগ ম্যাকডারমট, মার্ভ হিউজ, মাইক হুইটনিদের মত বোলাররা, আমাকে আউট করার জন্য সব কিছু করবে, এটি আমি ভালোই জানতাম। আর সেই চ্যালেঞ্জ সামলানোর জন্য আমি তৈরিও ছিলাম।’

ঐ সফরে দল হিসেবে ভারত খারাপ খেললেও, টেন্ডুলকার দু’টি সেঞ্চুরি করেন। কারন রক্ষণাত্মক না হয়ে রান করার দিকে মনোযোগি ছিলেন তিনি। চলমান সিরিজে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদেরও রানের দিকে মনোযোগি হতে বললেন টেন্ডুলকার।

টেস্ট ও ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের মালিক টেন্ডুলকার বলেন, ‘শুধু রক্ষণাত্মক ব্যাটিং নয়, অস্ট্রেলিয়ায় সফল হতে রান করতে হবে। সবাই মনে করে, অস্ট্রেলিয়ার পিচে অতিরিক্ত বাউন্স ও গতি আছে। ব্যাটসম্যানরা যদি ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে নামে, রক্ষণাত্মক ব্যাটিং না করে রান করার কথা মাথায় রাখে, তবে বড় ইনিংস খেলার সুযোগ থাকে। আবার বোলানদেরও ভালো করার সুযোগ থাকে। প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলার জন্য বাউন্স পেতে হলে, বোলারকে বিশেষ একটি জায়গায় বল করতে হবে। কাজটা কঠিন, তারপরও চেষ্টা-ইচ্ছা থাকলে সম্ভব।’

অধিনায়ক বিরাট কোহলির না থাকাটা, ভারতকে ভোগাবে বলে জানান টেন্ডুলকার। তবে কোহলিকে ছাড়াও ম্যাচ জয়ের সামর্থ্য ভারতের আছে বলে জানান কোহলি, ‘কোহলির মত খেলোয়াড় দলে না থাকাটা অনেক বড় ক্ষতিই বলা যায়। তবে কোহলিকে ছাড়া টেস্ট জয়ের সামর্থ্য ভারতীয় এই দলটির আছে। দলে অনেক তরুণ-উদীয়মান খেলোয়াড় রয়েছে। যারা ভবিষ্যতে ভারতকে নেতৃত্ব দিবে। অস্ট্রেলিয়ার মত কন্ডিশনে নিজেদের প্রমানের এটিই ভালো সুযোগ।’

শচীন টেন্ডুলকার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের মালিক, তিনি টেস্টে ৫১ ও ওডিআইতে ৪৯টি সেঞ্চুরীর মালিক। সেঞ্চুরীর সেঞ্চুরী করার একমাত্র এই রেকর্ডটি তার দখলে। ক্রিকেটের ঈশ্বরখ্যাত এই কিংবদন্তীর দিক-নির্দেশনা ভারত কতটুকু কাজে লাগায় এবং সাফল্য পায় তাই দেখার বিষয়। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?