মেসি বার্সাতেই ক্যারিয়ার শেষ করুক: গার্দিওলা

প্রকাশ : ২১ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৫৩

সাহস ডেস্ক

ম্যানচেস্টার সিটিতে আর মাত্র ৭ মাস বাকি আছে কোচ পেপ গার্দিওলার। এরই মধ্যে আরো দুই বছর পেপের সাথে চুক্তি বাড়িয়ে নিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এতেই লিও মেসির সিটিতে আশার সম্ভাবনাও বেড়ে গেছে। এবং ক্লাব কর্তৃপক্ষরাও মেসির পাড়ি জমানো নিয়ে জোর পরিকল্পনা শুরু করেছে। তবে গার্দিওলা জানিয়েছেন, মেসি যেন ক্যাম্প ন্যুয়ে তার ক্যারিয়ার শেষ করেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে মেসির সিটিতে পাড়ি জমানোর সম্ভাবনা নিয়ে প্রশ্ন করলে একথা বলেন পেপ গার্দিওলা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ব্যর্থতার পর গত আগস্টে ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে ক্যাম্প ন্যু ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান মেসি। সেসময় তাকে পাওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে ছিল ম্যানচেস্টার সিটি। আগামী গ্রীষ্মেই বার্সার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে মেসির। ফলে বিনা ট্রান্সফার ফিতেই ক্যাম্প ন্যু ছাড়তে পারবেন তিনি। এখনও পুরো মৌসুমের জন্য চুক্তিবদ্ধ হলেও আগামী জানুয়ারির ট্রান্সফার উইন্ডো খোলার পর চাইলে অন্য কোনো ক্লাবের সঙ্গে আগে থেকেই কথাবার্তা চূড়ান্ত করে রাখতে পারবেন মেসি। সেক্ষেত্রে গার্দিওলার চুক্তির মেয়াদ ৭ মাস বাকি থাকতেই নবায়ন করার ব্যাপারটি সম্ভাবনার দোয়ার খুলে দিয়েছে বলেই ভাবা হচ্ছিল। তবে মেসির প্রিয় কোচ গার্দিওলাও চান না সমর্থকদের অযথা বাড়তি আশা দিতে।

গার্দিওলা বলেন, ‘মেসি বার্সেলোনার খেলোয়াড়। আমি বহুবার বলেছি, একজন ভক্ত হিসেবে আমি চাই মেসি সেখানেই ক্যারিয়ার শেষ করুক। তার চুক্তির মেয়াদ এই মৌসুমে শেষ হবে। আমি জানি না তখন ওর সিদ্ধান্ত কি হবে।’

তিনি বলেন, ‘বার্সার প্রতি আমি পূর্ণ শ্রদ্ধা পোষণ করি। তারা আমার জন্য যা করেছে তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। একাডেমীতে, খেলোয়াড় এবং কোচ হিসেবে তারা আমাকে সবকিছু দিয়েছে।’

গার্দিওলা আরো বলেন, ‘মেসি বার্সার খেলোয়াড় এবং ট্রান্সফার মার্কেট জুন ও জুলাইয়ে। এখন আমাদের সামনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ এবং অর্জন অপেক্ষা করছে। আপাতত আমাদের মাথায় এটাই কাজ করছে। এর বাইরে আমি কিছু বলতে পারব না।’

গার্দিওলার নতুন চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে ২০২৩ সালে। ফলে সিটিতে তার সাত মৌসুম পূর্ণ হবে, যা যৌথভাবে বার্সা ও বায়ার্ন মিউনিখের কোচ হিসেবে কাটানো সময়ের সমান। ৪৯ বছর বয়সী কোচের প্রতি বড় বোর ক্লাবের নজর থাকলেও সিটির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না করলে সাময়িকভাবে অবসরে চলে যাওয়ার চিন্তাভাবনা করছিলেন তিনি। ২০১২ সালে বার্সা থেকে সরে দাঁড়ানোর পর তিনি বিরতি নিয়েছিলেন।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ব্যর্থতার পর গত আগস্টে ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে ক্যাম্প ন্যু ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান মেসি। সেসময় তাকে পাওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে ছিল ম্যানচেস্টার সিটি। কিন্তু তৎকালীন বার্সা প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তোমেউ তাদের বাধা হয়ে দাঁড়ান। অক্টোবরে বার্তোমেউ নিজেই পদত্যাগ করেন। কিন্তু মেসির ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত থেকে যায়।

গতবার মেসিকে পাওয়ার চেষ্টা করেছিল পিএসজিও। এবারও হয়তো সিটির পাশাপাশি ফরাসি জায়ান্টরাও লড়াইয়ে নামবে। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডকে ধরে রাখার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছেন বার্সার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থীরা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?