অস্ট্রেলিয়াকে জিততে দিল না বাংলাদেশের যুবারা

প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৩:৫২

সাহস ডেস্ক

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ টাই করেছে বাংলাদেশ যুব দল।

১৪ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) প্রিটোরিয়ার ডি ভিলিয়ার্স ওভালে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ।

এদিন বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ৪৩ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৫০ রান করেছিল বাংলাদেশ। জবাবে ৪৩তম ওভারের শেষ বলে অলআউট হওয়ার আগে ঠিক ২৫০ রানই করে অস্ট্রেলিয়ার যুবারা। যার ফলে অমীমাংসিতই থেকে যায় ম্যাচ।

টস জিতে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ও শামীম হোসেনের অপরাজিত হাফসেঞ্চুরিতে সম্মানজনক স্কোর করে আকবর আলী নেতৃত্বে বাংলাদেশ। ৮২ বলে ৫২ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন ইমন। তবে ঝড়ো ইনিংস খেলা শামীম ৩৩ বলে ৩টি চার ও সমান ছক্কায় ৫৯ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন।

বাংলাদেশের দেওয়া ২৫১ রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা বেশ ভাল করেছিল অস্ট্রেলিয়ান যুবারা। উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৬৬ রান। রানআউটে কাঁটা পড়ে সাজঘরের পথ ধরেন ৫০ বলে ৪৬ রান করা স্যাম ফ্যানিং। আরেক ওপেনার লিয়াম স্কট করেন ৫০ বলে ৩৪ রান। অধিনায়ক ম্যাকেঞ্জি হার্ভি ৩১ বলে ১৯ রানের বেশি করতে পারেননি।

এরপর হাসান মুরাদ ও শরীফুল ইসলামদের বোলিংয়ে ম্যাচে নিজেদের সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রাখে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তবে লাচলান হার্নি ৩৯ বলে ৪১ ও কোরি ক্যালি ২২ বলে ৪৪ রান করে অসিদের এগিয়ে দেন। ইনিংসের ৪২ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮ উইকেটে ২৪০ রান।

তাদের জয়ের জন্য যখন প্রয়োজন ১১ রান, তখন বল হাতে আসেন শরীফুল ইসলাম। তার ৪ বল থেকে ৯ রান নিয়ে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু শেষ দুই বলে ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচ টাই করে বাংলাদেশ। এর মধ্যে শেষ বলে ২ রান নিতে গিয়ে রানআউট হন অসিদের শেষ ব্যাটসম্যান টড মারফি।

বাঁহাতি পেসার শরিফুল ৪টি, হাসান মুরাদ ২টি এবং একটি করে উইকেট দখল করেন শাহীন আলম ও তৌহিদ হৃদয়।

আগামী ১৫ জানুয়ারি নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে জোহান্নেসবার্গে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?