x

এইমাত্র

  •  ১৭-২৩ মে ‘লকডাউন’, প্রজ্ঞাপন জারি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিট আবারো প্রস্তুত

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০২১, ১৭:০৮

চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে বন্ধ থাকা করোনা ইউনিটটি আবারো প্রস্তুত হয়েছে। ২টি হাইফ্লো ন্যাজ্যাল ক্যানোলা, ১২টি অক্সিজেন কনসেট্রেটর, সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই, পালস অক্সিমিটার ও অনান্য যন্ত্রপাতি ও ঔষধ সমৃদ্ধ পৃথক অবজারভেশন ইউনিটসহ ২০ শয্যার ইউনিটটি পরিচালনায় অর্থ বরাদ্দের আশ্বাস পাওয়া গেছে।

এখন থেকে হাসপাতালের নতুন ভবনে করোনা ইউনিটে রোগি ভর্তি করা হবে বলেও জানিয়েছেন সিভিল সার্জন জাহিদ নজরুল চৌধুরী। আজ শুক্রবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান।

গত বছর এই ইউনিটটি জেলায় করোনা চিকিৎসায় ব্যপক ভূমিকা রাখে। পরে রোগি কমে এলে ব্যয়বহুল ইউনিটটি বন্ধ রাখা হয়।

এদিকে জেলায় নতুন করে আরও ৮ জন করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এদের ৭ জন সদর ও ১ জন  শিবগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। গত বৃহস্পতিবার রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব থেকে আসা ২৭ জনের নমূণা ফলাফলে ওই ৮ জন শনাক্ত হন বলে জানান সিভিল সার্জন।

তিনি আরো জানান, এনিয়ে জেলায় ৮৭২ জন শনাক্ত হলেন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৮১৬ জন। মারা গেছেন ১৪ জন। জেলায় চিকিৎসাধীন রোগি এখন ৪২ জন। এদের ৩৯ জন সদর, ২ জন শিবগঞ্জ ও ১ জন নাচোল উপজেলার বাসিন্দা। জেলার গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট উপজেলা এখন রোগিশূণ্য। তিনি আরও জানান, জেলা থেকে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৩৯৫ জনের নমূণা সংগৃহীত হয়েছে। এখনও ফলাফল আসে নি ৮২ টি নমূণার।

এদিকে জেলায় প্রথম দিনে করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় দফা ডোজ নিয়েছেন ২২৬ জন। গত বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) থেকে সারা দেশের ন্যয় চাঁপাইনবাবগঞ্জেও এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এদের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৩৭, শিবগঞ্জে ৩৭, গোমস্তাপুরে ২৫, নাচোলে ১৮ ও ভোলাহাটে ৯ জন প্রথম দিনে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেন।

নিজে প্রথম দিন দ্বিতীয় ডোজ নেয়া সিভিল সার্জন জানান, জেলায় একযোগে প্রথম ও দ্বিতীয় দফা ভ্যাকসিন কার্যক্রম চালু রয়েছে। কেউ মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ না পেলেও ভ্যাকসিন কার্ড নিয়ে নির্ধারিত দিনে নির্ধারিত কেন্দ্রে গিয়ে টীকা নিতে পারবেন (ছুটির দিন ব্যতীত)। প্রথম দিন দ্বিতীয় ডোজ নেয়া কারো কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা জানা যায়নি বলেও জানান সিভিল সার্জন।

তিনি বলেন, জেলায় গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রথম দফা ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৪৮,৮৬১ জন। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৫৯ হাজার ১৭৯ জন। জেলায় এ পর্যন্ত ৫৩ হাজার ৫শত ডোজ ভ্যাকসিন এসেছে। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) দ্বিতীয় দফার জন্য আরও ৩৩ হাজার ডোজ আসার কথা রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত