জামালপুরে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি, সন্তুষ্ট চালক-যাত্রীরা

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০২২, ১৮:৫৩

মশিউর রহমান, জামালপুর

আগামী রবিবার (১০ জুলাই) ঈদুল আযহা পালিত হবে। ঈদযাত্রার বিষয় নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে আলাদা টেনশন কাজ করে। তবে জামালপুর জেলার জনসাধারণ এবং চাকরিজীবীদের ঈদ যাত্রার ভোগান্তির দিন শেষ। জামালপুর জেলার সকল আঞ্চলিক মহাসড়ক, আন্তঃযোগাযোগ সড়ক নিয়ে সংশ্লিষ্ট সকলেই সন্তুষ্ট। জামালপুর জেলার দুটি আঞ্চলিক মহাসড়ক, একটা জামালপুর মুক্তাগাছা আঞ্চলিক মহাসড়ক আরেকটি জামালপুর ধনবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়ক। দুটি সড়ক একদমই নতুন, চলাচলে সন্তুষ্ট সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষ।

জামালপুর জেলা শহর থেকে ছয় উপজেলার সবগুলো সংযোগ সড়কও নতুন, শুধুমাত্র বকশিগঞ্জ সড়কে শেরপুরের অংশে একটু কাজ বাকী। জেলায় বসবাসকারী সকল সরকারি বেসরকারি চাকুরী সহ জেলার জনসাধারণ সবগুলো সড়ক নতুনভাবে তৈরি হওয়ায় অত্যন্ত খুশি।

অন্যান্য বছরগুলোতে শুধুমাত্র ভাঙ্গাচোরা সড়কের কারণে জনসাধারণের ঈদ যাত্রায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হতো। জামালপুর থেকে ময়মনসিংহে  যাতায়াতকারী একাধিক সিএনজি অটোরিকশার ড্রাইভারের সাথে কথা হলে তারা জানান, এখন আমরাও খুশি, যাত্রীরাও খুশি। আগে একটা ট্রিপেই  ঝাঁকুনি খেয়ে অবস্থা খারাপ হয়ে যেতো। এখন যাত্রীরা ঘুমিয়ে পড়ে, দেড় ঘন্টা পরেই দেখে ময়মনসিংহে পৌঁছে গেছে।

জামালপুরে চাকুরীরত পার্শ্ববর্তী জেলার কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে তারা বৃহস্পতিবার অফিস শেষ করে রাতে কিংবা শুক্রবার সকালে বাড়িতে যাবে। তারা জানান, যেহেতু সড়কের সমস্যা সমাধান হয়ে গেছে সেহেতু বাড়ি যাওয়া নিয়ে তাদের টেনশন নাই।

সড়ক মহাসড়ক  নিয়ে কথা বলতে যোগাযোগ করা হয় জামালপুর সড়ক ভবনে, উপসহকারী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম জানান, আমি সারাদিন অফিসের বাইরে কাজ করেছি। বর্তমান সরকারকে জামালপুরের জনগণের ধন্যবাদ দেওয়া উচিত। সেই সাথে জামালপুরের এমপি মন্ত্রীরাও ধন্যবাদ প্রাপ্য। জামালপুরের সড়ক ব্যবস্হা অতীতের যেকোনো সময়ের চাইতে আধুনিক এবং উন্নত হয়েছে। আমরা মনোযোগ দিয়ে এবং সঠিকভাবে সড়ক মহাসড়কের কাজ দ্রুত শেষ করার চেষ্টা করেছি এবং যত কাজ এখন চলছে সেগুলো ভালোভাবে শেষ করার চেষ্টা করছি।

সাহস২৪.কম/এএম/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?