শিকল পরিয়ে শিশু শিক্ষার্থীকে নির্যাতন, গ্রেপ্তার মাদ্রাসার দুই শিক্ষক

প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪১

সাহস ডেস্ক

লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে শিশু শিক্ষার্থীর পায়ে শিকল পরিয়ে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষকসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পানপাড়া বাজারে দারুল কোরআন মহিলা মাদ্রাসায়।

গ্রেপ্তারকৃত দুই শিক্ষক হলেন রায়পুর উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের ব্যবসায়ী ফজলুল করিমের ছেলে ও প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক মোঃ শহীদুল ইসলাম এবং লক্ষীপুর সদর উপজেলার শ্যামগঞ্জ গ্রামের দেওয়ান বাড়ির নুরুল আমিনের ছেলে ও প্রতিষ্ঠানটির সহকারী শিক্ষক মোঃ আশেক এলাহী তারেক। গতকাল শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আরমান হোসেন নাজেরা বিভাগের ছাত্র। সপ্তাহখানেক তার পায়ে শিকল পরিয়ে নির্যাতন করা হয়।

আরমানের নানী পারভিন আক্তার এঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭০ ধারায় থানায় মামলা দায়ের করেন। তিনি বলেন, নাতিকে আরবী শিক্ষা দেওয়ার জন্য মাদ্রাসায় দিয়েছি। সেখানে যে শিকল পরিয়ে এমন নির্যাতনের ঘটনা ঘটে তা আমরা জানতান না। এমন অমানবিক ঘটনার জন্য জড়িত শিক্ষকদের বিচারের দাবি জানান তিনি।

রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে লক্ষ্মীপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সাহস২৪.কম/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?