গাবতলী পশুর হাট

হাটের চিত্র দেখে ক্ষিপ্ত মেয়র, ১০ লাখ টাকা জরিমানা

প্রকাশ : ১৯ জুলাই ২০২১, ১৮:০১

সাহস ডেস্ক

স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনসহ ইজারার শর্ত ভঙায় অসন্তোষ প্রকাশ করে গাবতলীর স্থায়ী পশুর হাট ইজারাদারকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। একই সঙ্গে হাসিল ঘর বন্ধ করে হাসিল আদায় বন্ধ রাখা হয় এক ঘণ্টা।

সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে হাট পরিদর্শনে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এই জরিমানা করান ডিএনসিসি মেয়র।

হাট পরিদর্শন শেষে মেয়র আতিকুল সাংবাদিকদের বলেন, এ বছরই প্রথম উত্তর সিটি করপোরেশনের ৯টি হাটে ৯টি অ্যান্টিজেন টেস্ট বুথ বসানো হয়েছে। তাতে তিনজন ধরা পড়েছেন। এরপরও তারা উদাসীন। এটা সিটি করপোরেশনের হাটে হতে পারে না।

তিনি বলেন, আমরা অব্যবস্থাপনার বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি। আরও কঠোর ব্যবস্থা নেব। রোজার ঈদের আগে আমরা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় উত্তরার একটি শপিং মল বন্ধ করে দিয়েছিলাম। এখনো সেই ব্যবস্থা নিতে পারি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার আগে যে চুক্তি ও শর্ত অনুযায়ী হাট ইজারা দেওয়া হয়েছে, সেই শর্তগুলো যথাযথ পরিপালন হচ্ছে কি না, সেটি পরিদর্শন করেন মেয়র। এ সময় যারা মাস্ক ছাড়া হাটে প্রবেশ করেছেন, তাঁদের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করেন। মাস্কবিহীন অনেক ব্যবসায়ীকে তিনি মাস্ক পরিয়ে দেন।

মেয়র বলেন, আমরা হাটের বাইরের যেসব জায়গার বাঁশ ভেঙে দিয়েছি, সেখানেও গরু বাঁধা হয়েছে। তাতেও সমস্যা মনে করি না। সমস্যা হচ্ছে কেন স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না।

হাটের এই অব্যবস্থাপনার জন্য কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, গণমাধ্যমকর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ বিষয়ে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেটরা রয়েছেন, তারাই বলতে পারবেন তারা কী ব্যবস্থা নেবেন। আইন অনুযায়ী যা ব্যবস্থা নেওয়ার দরকার, তারা তা-ই নেবেন। এ সময় তিনি একটি হাসিল আদায়ের বুথের চিত্র খারাপ দেখে জরিমানা করার নির্দেশ দেন।

আতিকুল ইসলাম আরও জানান, এ বছর কোরবানি–পরবর্তী শহর পরিষ্কার করার জন্য আমাদের ১১ হাজার কর্মী কাজ করবেন। আমিও কিন্তু মাঠে থাকব। আমাদের কাউন্সিলররা মাঠে থাকবেন। সব কর্মকর্তা–কার্মচারী মাঠে থাকবেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আমরা শহর পরিষ্কার করব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?